চট্টগ্রাম মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় বহুমুখী সমবায় সমিতির সাংবাদিক সম্মেলন।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১ ঘটিকায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে
এফ. রহমান হলে চট্টগ্রাম মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ ও চট্টগ্রাম
মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে ছিন্নমূল বস্তিবাসী হত দরিদ্র নিম্ন আয়ের
মানুষের পূর্ণবাসন এর লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মহোদয়ের ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে অগ্রাধিকার
ভিত্তিতে বস্তিবাসীদের স্থায়ী পুনর্বাসনের দাবীতে সংগঠনের সভাপতি শহিদুল ইসলাম শহিদ এর
সভাপতিত্বে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন- সংগ্রাম পরিষদের নেতা গাজী
আবুল কালাম, আনোয়ারা বেগম, মকবুল আহাম্মদ, আলী হোসেন ভান্ডারী, মোঃ মোস্তফা, সংগঠনের
সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুর রহিম, অর্থ সম্পাদক বাবু স্বপন শীল, বাবু রুপন ঘোষ, মোঃ চাঁন মিয়া,
ছায়েদুল ইসলাম বাবুল, মোঃ আব্দুল খালেক, আবু বক্কর সিদ্দিক, সেলিম মাঝি, মোঃ নুরুল আলম, মোঃ
নুরুদ্দিন হোসেন, মোঃ ফারুক সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ ও আঞ্চলিক নেতৃবৃন্দ।
সভাপতির বক্তব্যে বলেন- আমরা অভাবের তাড়নায়, নদী ভাঙ্গা প্রাকৃতিক দুর্যোগ, বন্যা ইত্যাদির কারণে
প্রতি বছর হাজার হাজার মানুষ বাড়ি ভিটা, চাষের জমি হারিয়ে ভূমিহীন হয়ে সহায় সম্বল হারিয়ে
দু’মুঠো অন্নের সন্ধানে পরিবার-পরিজন নিয়ে চট্টগ্রাম মহাগরে বসবাস শুরু করি। পথের ধারে,
ফুটপাতে, নালা-খালের পাড়ে, পরিত্যাক্ত জায়গায়, পাহাড়ের পাদদেশে, রেলের ওয়াগনে লাইনের পাশে, সরকারী
খাস জঙ্গলে জনবিচ্ছিন্ন এলাকায় মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। এমনকি মাদক
ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ, মাস্তান, সন্ত্রাসীরা আমাদের ব্যবহার করতে বাধ্য করছে। তিনি আরো বলেন-
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সুবিবচেনা ও দৃষ্টি সুচিন্তা চট্টগ্রাম
ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের আকুতি বুঝতে পেরে ১৯৮৬ ও ১৯৯৬ সালে চট্টগ্রাম লালদিঘীর মাঠে
অনুষ্ঠিত আওয়ামীলীগের জনসভায় পুনর্ববাসনের প্রতি একাত্বতা পোষণ করেন। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর
কন্যা শেখ হাসিনা ঘোষণা করেছেন “দেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবেনা। কোন লোক অনাহারে
থাকবেনা। বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করবে না।” তিনি আরো বলেন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি ও
বিচক্ষণতায় চট্টগ্রাম ছিন্নমূল বস্তিবাসীর প্রাণের সংগঠন সমিতি ও সংগ্রাম পরিষদের
আবেদনের প্রেক্ষিতে সাড়া দিয়ে সংগঠনের আবেদনকৃত খাস জায়গা বাকলিয়া বন্দর মৌজায় জেগে
উঠা ১৩ একর চর জমিতে ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের পুনর্বাসনের জন্য প্রকল্প গ্রহনের জন্য বর্তমান
সরকারের সাবেক গৃহায়ন মন্ত্রী, বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধি, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের কর্মকর্তা, প্রকল্প রিচালক
সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন। কিন্তু আমাদের ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন হয়নি।

সবশেষে আমাদের দাবী গুলো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, চট্টগ্রামের প্রশাসন এবং সাংবাদিকদের নিকট
তুলে ধরে বলেন- প্রকৃত ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের পুনর্বাসন করতে হবে। ভাড়াভিত্তিক নয়, সহজ,
সহনীয় দীর্ঘমেয়াদী কিস্তিতে মূল্য পরিশোধের মাধ্যমে স্থায়ী পুনর্বাসন করতে হবে। পুনর্বাসন
ছাড়া বস্তি উচ্ছেদ নয়। ভূমিদস্যু, চাঁদাবাজ, লোভী, দুস্কৃতিকারীদের দিয়ে নয়, সরকারের স্বচ্ছ
তালিকা মাফিক পুনর্বাসন করতে হবে। ছিন্নমূল বস্তিবাসীদের সংগঠনের নেতা ও সরকারের
প্রতিনিধির সমন্বয়ে প্রকল্পের ফ্ল্যাট বন্টন বা বরাদ্দ দিতে হবে। সমিতির নির্বাচিত ব্যবস্থাপনা
কমিটির নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা হয়রানীমূলক মামলাকারী ভূয়া অভিযাগকারী প্রতারণামূলক
প্রচারণাকারীদের ও সমিতির স্বার্থ বিনষ্টকারীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন
পূর্বক উল্লেখিত দাবীগুলো বাস্তায়ন করে চট্টগ্রাম মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় বহুমুখী সমবায়
সমিতি লিঃ ও চট্টগ্রাম মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় সংগ্রাম পরিষদ নির্বাচিত কমিটির নিকট
হস্তান্তর করার অনুরোধ জানান।

 spankbang