বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মাল্টায় সমঝোতা স্বাক্ষর

মাল্টা প্রতিনিধি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) ভালেত্তা থেকে মুঠোফোনে সারাবাংলাকে বলেন, ‘মাল্টা ইউরোপের একটি ছোট দ্বীপ রাষ্ট্র। এই সফরটি খুব ভালো হয়েছে। তারা বেশ আন্তরিক এবং বাংলাদেশকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা করতে অনেক আগ্রহ দেখিয়েছে।’

মাল্টায় এটাই বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রথম সরকারি সফর উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এই সফরের মধ্য দিয়ে ঢাকা-ভালেত্তা সম্পর্ক নতুন মাত্রায় উন্নীত হল। কেন না, আমরা দুই দেশ দুটি বিষয়ে সমাঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছি। একটি হচ্ছে, এখন থেকে নিয়মিত দুদেশের নেতাদের মধ্যে উন্নয়ন বিষয়ে আনুষ্ঠানিক বৈঠক (পলিটিক্যাল কনসালটেশন) হবে। অন্যটি হচ্ছে, কূটনীতিকদের প্রশিক্ষণ বিষয়েও দুদেশের মধ্যে সমাঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়েছে।’ এছাড়া ওষুধ শিল্প, সমুদ্র অর্থনীতি, জনশক্তিসহ একাধিক বিষয়ে মাল্টা আমাদের সহযোগিতা করবে বলে জানান তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মাল্টা ছোট একটি দ্বীপরাষ্ট্র। এদের খুব বেশি সমুদ্রযান নেই, কিন্তু জাহাজ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে এরা খুব দক্ষ। এ ছাড়া মেরিটাইম ইস্যুতেও তারা খুব শক্তিশালী। তাদের মেরিন একাডেমি পৃথিবী বিখ্যাত। এই ক্ষেত্রে আমি মাল্টার সহযোগিতা চাইলে তারা খুব ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে।’

‘মাল্টায় কর্মী নিয়োগ’ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ভালেত্তা থেকে বলেন, ‘তাদের অর্থনীতি খুব ভালো কিন্তু জনসংখ্যা তেমন বেশি না। তারা তাদের দেশে অনেক অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে। আমি তাদের প্রস্তাব দিয়েছি যে বাংলাদেশের কর্মীরা বিশ্বজুড়ে সুনামের সঙ্গে কাজ করছে, মাল্টাতেও তারা কাজ করতে পারে। এই প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে মাল্টা আগ্রহ দেখিয়েছে। আশা করছি অদূর ভবিষ্যতে মাল্টায় আমাদের কর্মীরা কাজ করতে যাবেন।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, এই মুহূর্তে মাল্টায় প্রায় ২০০ জন বাংলাদেশি কর্মী কাজ করছেন। এর বাইরে মাল্টার একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেশকিছু বাংলাদেশি শিক্ষার্থী শিক্ষালাভ করছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) মাল্টার অনেক প্রভাব আছে। আমরা তাদেরকে বলেছি যে আমাদের ওষুধ শিল্পকে তোমাদের দেশে ঢোকার সুযোগ দাও, যাতে আমরা মাল্টা থেকে ইউরোপের বাজার ধরতে পারি। তারা বলেছে যে এই বিষয়েও তারা আমাদের সহযোগিতা করবে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মাল্টা সফরে দেশটির রাষ্ট্রপতি ড. জর্জ ভেলা, প্রধানমন্ত্রী জোসেফ মাসকট, পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য উন্নয়ন মন্ত্রী কারমেলা আবেলার সঙ্গে খুব আন্তরিক পরিবেশে আলাপ হয়েছে। তারা এই সফরে সার্বক্ষণিকভাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেনকে সহযোগিতা করেছে। মাল্টায় আওয়ামীলীগের সকল নেত্ববৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গত ২১ থেকে ২৩ জুলাই মাল্টায় দ্বিপাক্ষীক সফর করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সফর শেষে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) ভালেত্তার স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে ৩টায় ঢাকার পথে রওনা দেওয়ার কথা। সব ঠিক থাকলে দুবাই হয়ে বুধবার (২৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকায় পৌঁছবেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*