টিভির নামধারী ভুয়া সাংবাদিক আটক

সীতাকুণ্ডে নেয়ামুল হোসেন লিটন নামে এক ভুয়া সাংবাদিককে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ জুন) দুপুরে উপজেলা পরিষদে লিটন নিজেকে ভারতের তারা টিভির প্রতিনিধির পরিচয় দিতে গিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের হাতে আটক হন।

জানা যায়, মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে সীতাকুণ্ড উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে তথ্য অধিকার আইন বিষয়ে অবহিতকরণ সভায় তারা টিভির লোগো সংবলিত বুম নিয়ে এক যুবক প্রবেশ করেন। তারপর তিনি নিজেই আরেকটি ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করতে শুরু করেন এবং বারবার মঞ্চে উঠে কর্মকর্তাদের বিব্রত করতে থাকেন। এসময় অপরিচিত ওই ব্যক্তিকে দেখে স্থানীয় সাংবাদিকরা তার পরিচয় জানতে চান। তাৎক্ষণিক তিনি জানান, তার নাম নেয়ামুল হোসেন লিটন, বাড়ি সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারী এলাকায়। তিনি নিজেকে ভারতের তারা টিভির চট্টগ্রামের বিশেষ প্রতিনিধি ও দৈনিক ভোরের আকাশ পত্রিকার বার্তা সম্পাদক পরিচয় দেন।

এ সময় তার কথাবার্তায় সন্দেহ হলে স্থানীয় সাংবাদিকরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, তারা টিভির চট্টগ্রাম প্রতিনিধির দায়িত্বে রয়েছেন দৈনিক সংবাদের চট্টগ্রাম ব্যুরোপ্রধান নিরূপম দাশগুপ্ত। এ বিষয়ে জানতে সাংবাদিক নিরুপম দাশগুপ্তের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, লিটন নামের কোনো সাংবাদিক তারা টিভিতে নেই।

পরে স্থানীয় সাংবাদিকরা তারা টিভির কলকাতা অফিসে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, চট্টগ্রামে নিরুপম দাশগুপ্ত ছাড়া তাদের আর কোনো প্রতিনিধি নেই। এ অবস্থায় সাংবাদিকরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইউএনও মিল্টন রায়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

পরে আটক লিটন নিজেকে ভুয়া সাংবাদিক হিসেবে স্বীকার করে ভবিষ্যতে আর কোথাও সাংবাদিক পরিচয় দেবে না মর্মে লিখিত মুচলেকা দিয়ে মুক্তি পান।

সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাব সভাপতি এম সেকান্দর হোসাইন বলেন, আটক লিটন নিজেকে ভারতের তারা টিভির সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে গিয়ে দাপট দেখাচ্ছিলেন। এসময় সাংবাদিকরা চ্যালেঞ্জ করে তারা টিভির চট্টগ্রাম ব্যুরোপ্রধান ও ভারতে থাকা মালিকের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলে নিশ্চিত হন, এ নামে তাদের কোনো প্রতিনিধি চট্টগ্রামে নেই। পরে লিটন নিজের ভুল স্বীকার করে ভবিষ্যতে সাংবাদিক পরিচয় দেবে না মর্মে ইউএনওর কাছে মুচলেকা দিয়ে মুক্তি পান।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায় বলেন, লিটন নিজেকে ভারতের তারা টিভির সাংবাদিক পরিচয় দিলেও তা সত্য নয়। পরে মুচলেকা নিয়ে তাকে প্রথমবারের মতো ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*