চট্টগ্রাম শুভ বৌদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে বিশ্বশান্তি কামনা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব গৌতম বুদ্ধের জন্মোৎসব শুভ বৌদ্ধ পূর্ণিমা আজ। গৌতম বুদ্ধের শুভজন্ম, বোধিজ্ঞান ও মহাপরিনির্বাণ লাভ এই তিন ঘটনার স্মৃতি বিজড়িত বৈশাখী পূর্ণিমা বিশ্বের সব স্থানে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কাছেই বুদ্ধপূর্ণিমা নামে পরিচিত।

বৌদ্ধ ধর্মমতে, আজ থেকে আড়াই হাজার বছর আগে এই দিনে মহামতি গৌতম বুদ্ধ আবির্ভূত হয়েছিলেন। তাঁর জন্ম, বোধিলাভ ও মহাপ্রয়াণ বৈশাখী পূর্ণিমার দিনে হয়েছিল বলে এর (বৈশাখী পূর্ণিমা) অপর নাম দেয়া হয় ‘বৌদ্ধ পূর্ণিমা’। ভোর সকাল থেকে চট্টগ্রামে প্রতিটি বিহারে বিহারে পূণার্থীদের ভিড় দেখো যায়। চট্টগ্রাম বৌদ্ধ বিহারে সকলে দেখা গেছে নতুন কাপড় চোপড় পরে হাতে মোমবাতি, ফুলের থালা, আগরবাতি, সোয়াং নিয়ে বৌদ্ধের সামনে পূজা দিতে দেখা যায় উপাসিক উপাসিকাকে।

এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। বৌদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে আজ শনিবার (২১ মে) সরকারি ছুটির দিন।
চট্টগ্রাম বৌদ্ধ বিহার বৌদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে সকাল নয়ঘটিকার সময় বিশ্বশান্তি কামনায় বর্ণাঢ্য র্যালির আয়োজন করে বাংলাদেশ বৌদ্ধ যুব সমিতি ও সকল অঙ্গসংগঠন । এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কবুতর উড়িয়ে বেীদ্ধ পূর্ণিমার সূচনা করেন। বৌদ্ধমন্দিরের সামনে থেকে শুরু হয়ে নিউমার্কেট চত্তর জুবলি রোড হয়ে বৌদ্ধ মন্দিরে এসে শেষ করে। এছাড়াও সমবেত প্রার্থনা, ধর্মীয় আলোচনা সভা ও বৌদ্ধ পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, প্রাচীনকাল থেকে বাংলার মাটি ও মানুষের সাথে বৌদ্ধদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা ও কৃষ্টি গভীরভাবে মিশে আছে। গৌতম বুদ্ধ স্থান-কাল-পাত্রের ঊর্ধ্বে ওঠে পৃথিবীর সব জীবের কল্যাণ ও সুখ কামনা করেন। পৃথিবীকে সুখী ও শান্তিপূর্ণ করে গড়ে তোলার জন্য তিনি নিরন্তর প্রয়াস চালান। ‘অহিংস পরম ধর্ম’ বুদ্ধের এই অমিয় বাণী আজও সমাজের জন্য সমভাবে প্রযোজ্য। আজকের এই অশান্ত ও অসহিষ্ণু বিশ্বে মূল্যবোধের অবক্ষয় রোধ ও সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মহামতি বুদ্ধের জীবনাদর্শ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গৌতম বুদ্ধের জন্ম, বোধিলাভ এবং মহাপ্রয়াণের স্মৃতি বিজড়িত পবিত্র বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়সহ দেশবাসীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

‘বুদ্ধ পূর্ণিমা সকলের জীবনে সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি বয়ে আনুক’- এ কামনা করে তিনি আজ এক বাণীতে আশা প্রকাশ করে বলেন, এ দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায় গৌতম বুদ্ধের আদর্শ ধারণ করে জ্ঞান, মেধা, কর্মদক্ষতা ও কৃতিত্বে নিজেদের আরও ঊর্ধ্বে তুলে ধরবেন।

 spankbang