ফুলের মালা খুলে বরের গলায় জুতার মালা

নিউজ ডেস্কঃ বিয়েতে দাবি করেছিল বরপক্ষ মোটর সাইকেল কিনে দিতে হবে। কন্যাপক্ষ রাজি হয়। কিন্তু বিয়ের দিন বরপক্ষ বেঁকে যায়। তাদের কনে পক্ষের দেয়া মোটর সাইকেল পছন্দ না। চাই আধুনিক মডেলের দুই গুণ দামের। কনে পক্ষ এবার নড়েচড়ে বসে। গ্রামবাসীরাও মেনে নিতে পারেনি বরপক্ষের এই ‘লোভ’ আচরণ। পুরো গ্রামের লোক এক হয়ে বরের গলা থেকে ফুলের মালা খুলে নিয়ে নিয়ে জুতার মালা পরিয়ে দিয়েছে। বুধবার এ ঘটনা ঘটে ভারতের রাঁচীর পিথোরিয়ায়। আনন্দাবাজারের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

রাঁচীর সিকদিরির মুমতাজউদ্দিনের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছিল রুবিনা পরভিনের। রুবিনার বাবা বসিরউদ্দিন আনসারি বলেন, ‘পণ হিসেবে মোটরসাইকেল চেয়েছিল ছেলে। কয়েক দিন আগে তাকে রাঁচীর একটি শো-রুমে নিয়ে যাই। ছেলেই পছন্দ করেছিল মোটরসাইকেল। ’

বসিরউদ্দিন আরও জানান, বিয়ের ঠিক আগে বরযাত্রীরা মোটরসাইকেল দেখে রেগে যান নতুন মডেলের নতুন রঙের মোটরসাইকেল কিনে দেয়ার দাবি করা হয়। এসব শুনে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান রুবিনাও। তার পাশে দাঁড়ায় গোটা গ্রাম। গ্রামবাসীরা পাত্রপক্ষকে তখনই সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। বেগতিক দেখে সমঝোতার চেষ্টা করে বরযাত্রীরা। কিন্তু রুবিনা ছিলেন অনড়। ওই সময়ই স্থানীয়রা জুতার মালা তৈরি করে মুমতাজের গলায় পরিয়ে দেন।

 spankbang