খাগড়াছড়িতে ৫ নারী সংগঠনের সংবাদ সম্মেলন


খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি।

পার্বত্য চট্টগ্রামের ৫ নারী সংগঠন হিল উইমেন্স ফেডারেশন, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘ, নারী আত্মরক্ষা কমিটি, সাজেক নারী সমাজ ও ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি’র আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে আগামী ৯ এপ্রিল স্কুল-কলেজ ও অফিস-আদালতসহ সর্বক্ষেত্রে স্ব স্ব জাতিসত্তার জাতীয় পোশাক পরিধান কর্মসূচিসহ ৬ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

ইতি চাকমা হত্যার বিচার-হত্যার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন ও পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারা দেশে নারী ধর্ষণ-খুন-নির্যাতন বন্ধের দাবিসহ বিভিন্ন দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) সকালে খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভরস্থ ইউপিডিএফ জেলা কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ঘোষিত কর্মসূচির মধ্যে আরো রয়েছে- পার্বত্য চট্টগ্রামে ধর্ষণের মেডিক্যাল রিপোর্ট প্রদানে সরকারি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী ২৮ এপ্রিল ২০১৭ সমাবেশ; ক্ষুদ্র ঋণের নামে অমানবিক শোষন বন্ধের দাবি, উপযুক্ত কর্ম পরিবেশ নিশ্চিতকরণ, মিল ফ্যাক্টরিতে নারীর নিরাপত্তা, নারী জনপ্রতিনিধিদের অধিকতর উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে যুক্ত করা, বিচার সালিশে তাদের অংশগ্রহণের দাবিসহ ইত্যাদি নানা দাবিতে আগামী ১মে ২০১৭ জনপ্রতিনিধি ও পেশাজীবী সমাবেশ; ‘প্যালেস্টাইন সংহতি দিবস’-এ অংশগ্রহণ করার কারণে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরূপা চাকমা ও সাংগঠনিক সম্পাদক দ্বিতীয়া চাকমার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা তুলে নেয়ার দাবিতে আগামী ১ জুন আধ ঘন্টা ব্যাপী প্রতীকী রাজপথ অবরোধ/রাজপথে অবস্থান ধর্মঘট; আগামী ১ মে হতে ১২ জুন পর্যন্ত মাস ব্যাপী গণসংযোগ ও পাড়া-গ্রামে প্রতিবাদী নারী সমাবেশ এবং আগামী ১২ জুন কল্পনা চাকমা অপহরণের বিচারসহ নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ খাগড়াছড়ি সদরের শান্তিনগরে ভাড়া বাসায় নিজকক্ষে খাগড়াছড়ি কলেজের মেধাবী ছাত্রী ইতি চাকমাকে নির্মমভাবে খুনের ঘটনা আমাদের আতংকিত করেছে। আমরা শিউরে উঠেছি এই ভেবে যে, নিজ বাসাতেও আমাদের নারী সমাজ আজ নিরাপদ বোধ করছে না। আমাদের জন্য সবচেয়ে বেশি ভাবনা বিষয় হলো, নারীর ওপর খুন ধর্ষণ নির্যাতনের ঘটনা সংঘটিত হবার পরে প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের আওতায় আনা হয়না। কল্পনা চাকমা ১৯৯৬ সালের ১২ জুন চিহ্নিত অপরাধী লেঃ ফেরদৌস কর্তৃক অপহৃত হয়েছিলেন। কিন্তু ২১ বছর পরেও কল্পনা চাকমা’র চিহ্নিত অপহরণকারী গং’কে গ্রেপ্তারর করা হয়নি। কুমিল্লার সোহাগী জাহান তনুর হত্যাকারীদের এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি প্রশাসন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কাজলী ত্রিপুরা, নারী আত্মরক্ষা কমিটির সদস্য সচিব উক্রাচিং মারমা, সাজেক নারী সমাজের তথ্য ও প্রচার সম্পাদক শান্তি দেবী চাকমা ও ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সাবেক সভাপতি শান্তি প্রভা চাকমা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*