লুকিয়ে ফোন চেক করেন স্ত্রী ? সাবধান!

লুকিয়ে ফোন চেক করেন স্ত্রী ? সাবধান!চট্টগ্রাম নিউজ এজেন্সিঃ আপনিও কী সেই দলে পড়েন? লুকিয়ে-চুরিয়ে স্বামী বা স্ত্রীর মোবাইলের ইনবক্স বা ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের চ্যাট রুম খুলে দিব্যি পড়ে ফেলেন অন্যদের পাঠানো মেসেজ? কিন্তু জানেন কি এটাও এক ধরণের অপরাধপ্রবণতা। কখনও সন্দেহের বশে, কখনও বা শুধুই কৌতূহলবশত আপনি যেটা করছেন সেটা কিন্তু যথেষ্ট নিন্দনীয়। জেনে নিন ঠিক কী কী কারণে কখনওই আপনার সঙ্গীর ফোন চেক করা উচিত নয়।

১ মনে রাখবেন আপনারা আসলে দু’জন আলাদা মানুষ। তাই দু’জনের ব্যক্তিগত জায়গাটাও আলাদা। একে অপরকে পার্সোনাল স্পেসটা উপভোগ করতে দিন।

২ আপনার এই অভ্যাসের ফলে নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝিও শুরু হতে পারে।

৩ সব সময়ই একে অপরকে সম্মান জানানো উচিত। সঙ্গীর ফোন লুকিয়ে দেখার অর্থ তাঁকে সন্দেহ করা।

৪ নিজের জন্য কিছুটা ব্যক্তিগত জায়গা রাখা ভাল। মনে রাখবেন পাসওয়ার্ড শেয়ার করা মানেই ‘বেশি ভালবাসি’ এমনটা নয়।

৫ দীর্ঘ দিন ধরে আপনি এই কাজে অভ্যস্থ হয়ে গেলে তা আসক্তির জায়গায় চলে যেতে পারে। সুতরাং সময় থাকতে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করুন।

৬ সম্পর্কে বিশ্বাস আর ভরসাটাই আসল কথা। তাই অযথা উল্টো দিকের মানুষটার ব্যক্তিগত পরিসরে হস্তক্ষেপ করে সেই বিশ্বাস নষ্ট করবেন না।

৭ যদি দীর্ঘ দিন ধরে একই কাজ আপনি করতে থাকেন তা হলে এক সময় উল্টো দিকের মানুষটা আপনার ওপর বিরক্ত হয়ে যাবেন। ফলে সম্পর্কে তিক্ততা আসতে বাধ্য।

৮ সময় থাকতে এই অভ্যাস থেকে বেরতে না পারলে তা মানসিক রোগের পর্যায়েও চলে যেতে পারে।

৯ মনে রাখবেন আপনারা আসলে দু’জন আলাদা মানুষ। তাই দু’জনের ব্যক্তিগত জায়গাটাও আলাদা। একে অপরকে পার্সোনাল স্পেসটা উপভোগ করতে দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

 spankbang